Sokaler Hasi
Lifestyle

আনারের উপকারিতা কি কি ?

আনার একটি পরিচিত ফল । এটি যেমন দেখতে সুন্দর তেমনি খেতেও ভালো লাগে আর এই ফলটি পছন্দ করে না এমন কাউকে খুঁজে পাওয়া মুশকিল ।  আনারে থাকা পুষ্টি উপাদানসমূহ আমাদেরকে নিরোগ রাখতে সাহায্য করে। রোগীর পথ্য হিসেবেও এর দেখা মেলে। আনারের রয়েছে আরো বেশকিছু গুণ। চলুন জেনে নেয়া যাক-

ডালিম ফল আয়ুর্বেদিক ও ইউনানী চিকিৎসায় পথ্য হিসেবে ব্যবহৃত হয়। ডালিমে বিউটেলিক এসিড, আরসোলিক এসিড এবং কিছু আ্যলকালীয় দ্রব্য যেমন- সিডোপেরেটাইরিন, পেপরেটাইরিন,

আনারে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ফ্যাটি এসিড। ত্বকের প্রদাহ প্রশমিত করার গুণও রয়েছে এতে। তার সঙ্গে ফলটি ত্বকের কেরাটিনোসাইট কোষের পুনরুজ্জীবন ঘটায়। ফলে বয়সের ছাপ সহজে পড়ে না ত্বকে।

প্রতি ১০০ গ্রাম ডালিমে ৭৮ ভাগ পানি, ১.৫ ভাগ আমিষ, ০.১ ভাগ স্নেহ, ৫.১ ভাগ আঁশ, ১৪.৫ ভাগ শর্করা, ০.৭ ভাগ খনিজ, ১০ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম, ১২ মিলিগ্রাম ম্যাগনেসিয়াম, ১৪ মিলিগ্রাম অক্সালিক এসিড, ৭০ মিলিগ্রাম ফসফরাস, ০.৩ মিলিগ্রাম রাইবোফ্লাভিন, ০.৩ মিলিগ্রাম নায়াসিন, ১৪ মিলিগ্রাম ভিটামিন সি ইত্যাদি থাকে।

আনারের অর্গানিক জুস ত্বকের যত্নে দারুণ উপাদান। এর ক্ষুদ্র আকারের মলিকিউল গঠন ত্বকের গভীরে পৌঁছে তাকে হাইড্রেট করে। এই রসে প্রচুর পরিমাণে মাইক্রোনিউট্রিয়েন্ট এবং সাইটোকেমিক্যাল রয়েছে।

আনারের হালকা মিষ্টি নরম বীচিগুলো ছেঁচে তা খেলে ত্বকের মৃত অংশগুলো দূর হয়ে যায়।

ডালিমে এ্যালাজিক অ্যাসিড, অ্যান্টি অক্সিডেন্টসমূহ যা ক্যান্সার সৃষ্টি করা এনজাইমকে প্রতিরোধ করে থাকে। ডালিম শুধু ক্যান্সার নয় হৃদরোগের ঝুঁকিও হ্রাস করে থাকে। প্রতিদিন ২৫০ মিলিলিটার ডালিমের রস পান বা অর্ধেকটি ডালিম খাওয়ার চেষ্টা করুন।কারণ তা স্তন ক্যান্সার প্রতিরোধ করে থাকে।

Related posts

রাঁধবেন যেভাবে কাঁচা কলার দম

admin

কাঁচামরিচের পুষ্টিগুণ

admin

চিংড়ি মাছ দিয়ে পুঁইশাক রান্না

admin

Leave a Comment